Saturday, February 24, 2024
Homepoliticalnew political equation in Malda কংগ্রেসে ফিরছেন মৌসম নুর-আবু নাসের! আবু হাসেম...

new political equation in Malda কংগ্রেসে ফিরছেন মৌসম নুর-আবু নাসের! আবু হাসেম খান চৌধুরীর দাবিতে শোরগোল রাজ্য রাজনীতিতে

রণজিৎ দাস, মালদা, ইন্ডিয়া নিউজ বাংলা : মালদায় নতুন রাজনৈতিক সমীকরণের ইঙ্গিত। তৃণমূল ছেড়ে ফের কংগ্রেসে ঢুকতে পারেন মৌসম বেনজির নুর (Mausam Noor)? সেই সঙ্গে ফিরতে পারেন মৌসমের সুইৎজারল্যান্ড ফেরত মামা লেবু ওরফে আবু নাসের খান চৌধুরীও (Abu Nasar Khan Choudhury)? যা মিলল প্রয়াত বরকত গনি খান চৌধুরীর কোতোয়ালির ভিটে থেকেই। আর মালদার রাজনীতি তো বটেই, রাজ্য রাজনীতিতেও কার্যত এমন দাবি নিয়ে পড়ে গিয়েছে শোরগোল।

কংগ্রেসে ফিরছেন মৌসম নুর-আবু নাসের! দাবি আবু হাসেম খান চৌধুরীর new political equation in Malda 

বাংলার রাজনীতিতে কংগ্রেসের প্রতীক মালদার কোতোয়ালি ভবন new political equation in Malda 

এদিন মালদা জেলা কংগ্রেস সভাপতি তথা মালদা দক্ষিণের সাংসদ আবু হাসেম খান চৌধুরী (ডালু) (Abu Hasem Khan Choudhury) দাবি করেন, ‘বাংলার রাজনীতিতে কংগ্রেসের প্রতীক মালদার কোতোয়ালি ভবন। যেটা বরকত গনি খান চৌধুরীর বাড়ি। এখান থেকে যাঁরা কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে চলে গিয়েছেন তাঁরা আবার কংগ্রেসে ফিরে আসবেন। সেটা নিয়ে পরিবারের মধ্যে আলোচনা চলছে। ফের কোতোয়ালি ভবন থেকেই মালদা জেলায় কংগ্রেস পরিচালিত হবে।’

আরও পড়ুন : Corona daily report in West Bengal 1 jan 2022 : রাজ্যে বাড়ছে করোনা, বন্ধ দুয়ারে সরকার কর্মসূচি, স্থগিত মুখ্যমন্ত্রীর অনুষ্ঠান, ফের কঠোর নিয়ন্ত্রণবিধির চালুর সম্ভাবনা

সাংসদ ডালুবাবু আরও বলেন, ‘লেবুদা বিদেশে ছিলেন, ফিরে এসে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। পরে মৌসম তৃণমূলে গিয়েছেন। মালদা কংগ্রেসের রাশ আবার কোতোয়ালির হাতে থাকবে। সেই লক্ষ্যে আমরা এগোচ্ছি। মৌসম, লেবুদা কংগ্রেসে ফিরবেন। এটা আলোচনা পর্যায়ে রয়েছে।’

জালালপুরে কংগ্রেসের উদ্যোগে নববর্ষ পালন new political equation in Malda 

এদিন কালিয়াচকের জালালপুরে কংগ্রেসের উদ্যোগে নববর্ষ পালন উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন জেলা কংগ্রেস সভাপতি তথা সাংসদ আবু হাসেম খান চৌধুরী, কালিয়াচকের কংগ্রেস সভাপতি মতিউর রহমান, জালালপুর এলাকার প্রবীণ কংগ্রেস নেতা খেজামুদ্দিন আহমেদ ও এলাকার নেতাকর্মীরা। নতুন ইংরেজি বছরের ক্যালেন্ডার উদ্বোধন করেন সাংসদ ডালুবাবু। কংগ্রেস সূত্রে খবর, জেলার প্রত্যেকটি অঞ্চল কমিটিকে নববর্ষের ক্যালেন্ডার তৈরি করে তা বাড়ি বাড়ি বিতরণ করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একদা মালদার রাজনীতির রাশ ছিল কোতোয়ালির গনি পরিবারের হাতেই। পরে বরকত গনি খান চৌধুরীর মৃত্যুর পর সমীকরণ বদলে যায়। লেবু, শেহনাজ, মৌসমরা কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন। দু’ভাগ হয়ে যায় কোতোয়ালি। একদিকে কংগ্রেসের পতাকা, অন্যদিকে তৃণমূলের পতাকা। বদলে যায় গনির প্রাসাদের রংও। এ অবস্থায় মালদা জেলাতে কংগ্রেস প্রায় নিশ্চিহ্ন হয়ে যায় বলেই মত রাজনৈতিক মহলের।

আমার সঙ্গে কারও আলোচনা হয়নি, দাবি মৌসম নুরের new political equation in Malda

কংগ্রেস ছেড়ে মৌসম নুর তৃণমূলে এসে জেলা সভাপতি পদে দায়িত্ব নিয়েছিলেন। পরে তাঁকে তৃণমূল জেলা সভাপতি পদ থেকে সরিয়ে দেয়। বর্তমানে তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ তিনি মৌসম। দলের অভ্যন্তরে গুঞ্জন জেলা সভাপতির পদ যাওয়ার পর থেকেই মৌসমকে দলের কর্মসূচিতে আর সেভাবে দেখা যায় না। ইদানীং কোতোয়ালি ভবনের ক্ষমতা অনেকটাই হ্রাস হয়েছে। এহেন অবস্থান ডালুবাবুর এই দাবি অন্য মাত্রা বয়ে আনল রাজ্য রাজনীতিতে। যদিও গনির ভাগনি তথা রাজ্যসভার সাংসদ মৌসম নুর বলেন, ‘এই বিষয়ে আমার সঙ্গে কারও আলোচনা হয়নি। আমার কিছু জানা নেই।’

————-
Published by Subhasish Mandal

RELATED ARTICLES
Html code here! Replace this with any non empty raw html code and that's it

Most Popular