Saturday, February 24, 2024
HomekolkataKMC Mayor Firhad Hakim দ্বিতীয়বারের জন্য কলকাতার মেয়র হিসাবে শপথ নিলেন ফিরহাদ...

KMC Mayor Firhad Hakim দ্বিতীয়বারের জন্য কলকাতার মেয়র হিসাবে শপথ নিলেন ফিরহাদ হাকিম

কলকাতার ৩৮ তম মেয়র বা মহানাগরিক হিসাবে দ্বিতীয়বারের জন্য শপথ নিলেন ফিরহাদ হাকিম। এই প্রথম পুরসভার মধ্যেই খোলামঞ্চে কলকাতার মেয়রের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান হল। এদিন প্রোটেম স্পিকার রাম পেয়ারি রাম ফিরহাদ হাকিমকে প্রথমে শপথবাক্য পাঠ করান। এরপরই মালা রায় চেয়ারপার্সন হিসাবে শপথ নেন। শপথ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যসভার সাংসদ ও তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সী। এছাড়াও ছিলেন লোকসভার দলনেতা সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়,  নগরউন্নয়ন মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য প্রমুখ।

“বিশ্বের সেরা শহর হিসাবে কলকাতাকে তুলে ধরতে হবে” (KMC Mayor Firhad Hakim)

শপথ নেওয়ার পর ফিরহাদ হাকিম বলেন, ‘টিম কর্পোরেশন’কে বিশ্বের সেরা শহর হিসাবে কলকাতাকে তুলে ধরতে হবে।”কাউন্সিলারদের উদ্দেশ্যে ফিরহাদ বলেন সফল কাউন্সিলর হওয়ার একটাই মন্ত্র, ‘যখন ডাকি তখন পাই’। ফিরহাদ হাকিম বলেন, “মানুষের কাছে যখন ডাকি তখন পাই কাউন্সিলর যদি হতে পারেন, সেই কাউন্সিলর কিন্তু মানুষের বিচারে শ্রেষ্ঠ কাউন্সিলর। এটাই আজকের দিনে আমার করজোড়ে সকলের কাছে অনুরোধ, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কিন্তু এ জন্যই আমাদের দায়িত্ব দিয়েছেন। সেই মর্যাদা আমাদের রাখতেই হবে।”

আরও পড়ুন : Administration vacated government land in Jalpaiguri হাসপাতালের সামনে বেআইনি ব্যবসা, জলপাইগুড়িতে দখলমুক্ত সরকারি জমি

পুরসভার ডেপুটি মেয়র হিসাবে শপথ নেন অতীন ঘোষ। তাঁকে নিয়ে মোট ১৩ জন মেয়র পরিষদের সদস্য হয়েছেন। নাম রয়েছে দেবাশিস কুমার, দেবব্রত মজুমদার, সন্দীপরঞ্জন বক্সী, আমিরুদ্দিন ববি, সন্দীপন সাহা, জীবন সাহা, রাম পিয়ারী রাম, অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়, তারক সিং, মিতালী বন্দ্যোপাধ্যায়, বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায়, স্বপন সমাদ্দার।

“জীবন যদি যায় যাবে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিশ্বাসকে ভঙ্গ হতে দেব না” (KMC Mayor Firhad Hakim)

২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে শোভন চট্টোপাধ্যায় মেয়র পদ থেকে ইস্তফা দিলে, তৎকালীন পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের দায়িত্বে থাকা ফিরহাদকে কলকাতার মেয়র পদে বসান মমতা। আর ২০২১ কলকাতা পুরসভার ১৩৪টা আসন পাওয়ার পর অন্য কেউ মেয়র হবেন এমন জল্পনা তৈরি হয়েছিল তবে নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে ববি হাকিমের ওপরই আস্থা রেখেছেন। সেই আস্থার মর্যাদা দিতে ফিরহাদ হাকিমও নেত্রীর সামনে বলেছিলেন  “জীবন যদি যায় যাবে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিশ্বাসকে ভঙ্গ হতে দেব না। তাঁর আদর্শ, বিশ্বাস নিয়েই এতদিন পুরবোর্ড চলেছে। এরপরও চলবে। অর্থাৎ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দেখানো পথে হেঁটে আমরা শুধু কাজ করে যাব। আমৃত্যু ওনার বিশ্বাসের মর্যাদা দিয়ে উনি যে দায়িত্ব দিয়েছেন তা পালন করব।”

RELATED ARTICLES
Html code here! Replace this with any non empty raw html code and that's it

Most Popular