Tuesday, June 18, 2024
Homeলাইফ স্টাইলBenefits of eating lemon পাতি লেবুর উপকারিতা

Benefits of eating lemon পাতি লেবুর উপকারিতা

Benefits of eating lemon পাতে পাতি লেবুর উপকারিতা

নীলিমা সারগোধা, ইন্ডিয়া নিউজ বাংলা : পাতি লেবু বা কাগজি লেবুর আছে অনেক গুনাগুন ও উপকারিতা। লেবু আর তেঁতুল দুটোই স্বাদে টক। কিন্তু তেঁতুলের চেয়ে লেবুর গুণ অনেক বেশি।  একটি লোককথা প্রচলিত আছে হিন্দিতে, তেঁতুলে আছে একটি গুণ এবং ২০টি অপকারি গুণ। তবে লেবুর কোনো অপকারিতা নেই, উপকারিতা আছে ২০টি।

লেবু আমাদের শরীরের জন্য খুবই উপকারী। লেবু খেলে মুখের ব্রণ দূর হয়, এতে ক্ষারীয় উপাদান পাওয়া যায়, যা ব্রণের সংক্রামক ব্যাকটেরিয়া দূর করে। নখের হলুদ এবং কুৎসিত চেহারাও লেবু জল দিয়ে চিকিৎসা করা যেতে পারে। শুষ্ক ত্বক এবং ঠোঁট নরম ও চকচকে করতে লেবুর রস খুবই উপকারী।এ ছাড়াও এর অন্যান্য সুবিধা রয়েছে।

Benifits of lemon  চলুন জেনে নিই লেবুর উপকারিতা

ওজন কমাতে
লেবুতে উপস্থিত পলিফেনল বাড়তে থাকা স্থূলতা নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। এই পলিফেনলগুলি শরীরে অতিরিক্ত চর্বি জমতে বাধা দিতে কার্যকর বলে বিবেচিত হয়েছে। লেবু শরীরের মেদ কমাতে সাহায্য করে। এছাড়াও, হালকা গরম জলের সাথে লেবুর রস খাওয়া আরও উপকারী। লেবুর রস যদি হালকা গরম জলের সঙ্গে পান করা হয় তবে এটি হজমশক্তি বাড়ায় এবং বিপাকীয় হারের উন্নতি করে ওজন কমাতে সহায়ক হতে পারে।

ক্যান্সারের জন্য
এতে কোন সন্দেহ নেই যে ক্যান্সার একটি মারাত্মক রোগ এবং এর একমাত্র প্রতিকার হচ্ছে চিকিৎসা। তবে জীবনযাত্রা ও খাদ্যাভাসে পরিবর্তন এনে এর ঝুঁকি কমানো যেতে পারে। বিশেষ করে আমরা যদি কমলা এবং লেবুর মতো সাইট্রাস ফলের কথা বলি, তাহলে এগুলোর ব্যবহার ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে পারে। লেবুর মতো সাইট্রাস ফল খেলে অগ্ন্যাশয়ের ক্যান্সার এড়ানো যায়। লেবুতে উপস্থিত ফ্ল্যাভোনয়েড ক্যান্সার প্রতিরোধক হিসেবে কাজ করতে পারে। এছাড়াও, সাইট্রাস ফলের অ্যান্টি-টিউমার এবং কেমোপ্রিভেন্টিভ বৈশিষ্ট্যও রয়েছে।

জ্বরের জন্য
জ্বরের পিছনে অনেক কারণ থাকতে পারে, যার মধ্যে ব্যাকটেরিয়া এবং ভাইরাল সংক্রমণ প্রধান। এমন পরিস্থিতিতে লেবু খাওয়া সহায়ক হতে পারে। অনেকে জ্বরের ঘরোয়া প্রতিকার হিসেবেও লেবু ব্যবহার করেন। আমরা যদি লেবুর বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে কথা বলি তবে এটি ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ এবং এটি ব্যাকটেরিয়া এবং ভাইরাস দ্বারা সৃষ্ট সংক্রমণ থেকে রক্ষা করতে সহায়তা করে।

হার্ট সুস্থ রাখতে
হার্ট সুস্থ রাখতেও লেবুর রস গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। লেবু ভিটামিন সি এর একটি বড় উৎস এবং ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার করোনারি হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে পারে। অনেক সময় রক্তচাপের সমস্যাও হৃদরোগের কারণ হতে পারে। ভিটামিন-সি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে কাজ করে, যা হার্টের জন্য উপকারী। লেবুর মতো সাইট্রিক ফল ফ্ল্যাভোনয়েড সমৃদ্ধ এবং চিকিৎসায় সাহায্য করে।  সাইট্রাস ফ্ল্যাভোনয়েডের ক্ষমতার কথা বললে, এটি অক্সিডেটিভ স্ট্রেস, হাইপারলিপিডেমিয়া, প্রদাহ কমাতে, ধমনী রক্তচাপ এবং লিপিড বিপাককে উন্নত করতে কাজ করে। হার্ট সুস্থ রাখতে দৈনন্দিন জীবনে লেবু অন্তর্ভুক্ত করা যেতে পারে।

কিডনিতে পাথরের জন্য
যারা কিডনিতে পাথরে ভুগছেন তারা তাদের খাদ্যতালিকায় লেবু অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন। লেবুতে উপস্থিত সাইট্রেট প্রপার্টি পাথরের গঠন প্রতিরোধ করতে পারে। যদিও এটি অ্যাসিডিক প্রকৃতির, তবে এটি শরীরে ক্ষারীয় প্রভাব দেয় এবং কিডনির জন্য পরিষ্কারক হিসাবে কাজ করতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে প্রচুর পানির সাথে লেবু পানি খাওয়াও উপকারী হতে পারে। এই ব্যাপারে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া ভালো।

রক্তাল্পতা প্রতিরোধে
শরীর সঠিক পরিমাণে আয়রন না পেলে অ্যানিমিয়া হওয়ার আশঙ্কা থাকে। আয়রন সমৃদ্ধ খাবারের সাথে ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ খাবার গ্রহণ করা হলে তা শরীরে আয়রনের সঠিক শোষণে সাহায্য করতে পারে। এই অবস্থায় ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ খাবার লেবুর সাথে আয়রন সমৃদ্ধ খাবার খেলে উপকার পাওয়া যায় এবং রক্তশূন্যতার ঝুঁকি রোধ করা যায়।

SHARE
RELATED ARTICLES
Html code here! Replace this with any non empty raw html code and that's it

Most Popular